ফিটনেস ঠিক রাখার উপায়ঃ ০৫ টি কার্যকরী টিপস

টনি রবিন্স এর একটি কথা মনে পড়ছে,তিনি বলেছিলেন,” আপনি কতগুলি ভুল করেন বা আপনি কীভাবে ধীর গতিতে অগ্রসর হন তা কোন ব্যাপার না, যারা এখনো চেষ্টা করে না, এমন সকলের থেকে আপনি এগিয়ে আছেন। অর্থাৎ ফিটনেস ব্যাপারটির সাথে আপনার দৃঢ় আত্মবিশ্বাস একটা গভীর সম্পর্ক আছে। ফিটনেস ধরে রাখতে আপনাকে চলতে হবে বহুদূর যেটা সবাই পারে না।কেও চেষ্টায় করে না,কেও বলে এত কিছু করে কি লাভ! যা হবে তাই হবে,কেও নিয়মিত না,কেও অতিরিক্ত ভাব নিতে যায়,ইত্যাদি ইত্যাদি। এবতাবস্থায় আপনার করনীয় কি? জানতে হলে পুরো পোষ্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

ধরে নিয়েছি আপনি ফিটনেস বিজ্ঞানের কিছুই জানেন না বা আপনি জেনেও নতুন করে শুরু করতে চান।তাহলে এখন শুরু করুন। আজকের পোস্ট সাজানো হয়েছে ফিটনেস ঠিক রাখার উপায় নিয়ে। ফিটনেসের ০৫ টি কার্যকরী টিপস নিয়ে নিচে আলোচনা করা হলোঃ

তাড়াহুড়া থেকে বিরত থাকুনঃ  ধীর হোক তবে চলমান রাখতে হবে এই নীতি ফলো করতে হবে। প্রতিটা পদক্ষেপ গণনা করতে হবে। তাড়াহুড়া না করে বরং ধীরে ধীরে পদক্ষেপগুলো চালিয়ে যান।

মনকে শেখানঃ আপনার মনকে আপনি প্রশিক্ষণ দিন,যেন আপনার ভালো পদক্ষেপ গুলো মেনে চলে। সামনে আগাবেন কি পিছে যাবেন ডানে কি বায়ে,থামবেন কি ধীরে যাবেন, এসবের মুলে আমাদের মন সেটআপ হলো আসল বিষয়। ধরুন,ব্যায়াম করতে কষ্ট হলেও আপনি যদি এর ভিতরে মজা খুঁজে পান তাহলে আপনার মন অটো সেটআপ হবে, যে এটা কোন ব্যাপার না এবং এটা প্রতিদিন করতেই হবে।

চিন্তা ও বিশ্বাসঃ যদি আপনি মনকে শেখাতে পারেন আর চিন্তা ও বিশ্বাসের গিঁট ছিঁড়ে না যায় তাহলে আপনি অনেক অনেক ব্যায়াম ও ফিটনেস কলাকৌশল আপনার জীবনে প্রয়োগ করতে চাইবেন।

টিম ও সাপোর্টঃ টিমের সাথে কাজ করতে যেয়ে আপনি যেমন অনুপ্রাণিত হবেন তেমনি কাওকে আপনার ভিতরের ফিটনেস জ্ঞান ভাগাভাগি করলেও সাহসী ও নিয়মানুবর্তিতা লাভ করতে পারবেন।

রুটিন অনুসরণ করুনঃ ফিটনেস গুরুরা কিন্তু শুরু থেকেই হিরো হয়নি,তারা একসময় আপনার মত ছিলো। তারা নিয়মতান্ত্রিক উপরের টিপস মেনে নিয়ে একটি নির্দেশিকা করতো। আসতে আসতে তারা ফিটনেস হিরো হয়েছে।

আজ এ পর্যন্ত আগামী পর্বে আপনাদের সবার উপস্থিতি কামনা করে বিদায় নিচ্ছি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *