দ্রুত ওজন কমানোর উপায় জেনে নিন

অতিরিক্ত ওজন/মেদ/ভুড়ি নিয়ে চিন্তিত ?

মেদ ভুড়ি কিংবা একটু বাড়তি ওজন কোমানোর জন্য বেশিরভাগ মানুষ সব সময় অনেক চিন্তিত থাকে । কী করলে কিংবা কী খেলে ওজন কম্বে সে নিয়ে তারা সব সম সচেতন থাকার চেষ্টা করে । এ নিয়ে তারা যেমন ইন্টারনেটে খোজা খুজি করে তেমনি ডাক্তার কিংবা পুস্টি বিদদের শরণাপন্ন ও হয়। তাদের জন্য আজকে আমার এই লেখা । আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে এবং ভালো ফল ও পাবেন ।

দ্রুত ওজন কমানোর উপায় জেনে নিন

ডায়েট কি এবং কেন?

ডায়েট বলতে পরিমিত খাওয়া কে বোঝায় , অনেকে আছেন সারাদিন না খেয়ে ডায়েট করেন কিংবা রাতে খাবার খান না । এটাকে ডায়েট বলে না । এটা শরীরের জন্য কোন উপকার তো করেই না বরং ক্ষতি সাধন করে বেশি।

তাই শরির কে সুস্থ এবং কর্মক্ষম রাখতে ডায়েট কিংবা পরিমিত খাদ্য গ্রহন করা অবশ্যই উচিৎ। আপনি পেট ভরে না খেয়ে ২ ঘন্টা পর পর অল্প কিংবা হালকা খাবার গ্রহন করেন , এটাও কিন্তু ডায়েট । এতে আপনার শরিরে যেমন শক্তির সঞ্চার হবে তেমনি ক্ষিধা ও লাগবে না।

যাদের ওজন রীতিমত চিন্তায় ফেলে দিয়েছে তাদের জন্য এখানে ৩ টি খাবার চার্ট বা ডায়েট প্ল্যান উপস্থাপন করলাম ।

দ্রুত ওজন কমানোর ডায়েট চার্ট

ডায়েট প্ল্যানঃ-১

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা ভাত ছাড়া থাকতে পারেন না। অবশ্য এই কারনে হয়তো আমাদের বলা হয় “মাছে ভাতে বাঙালি”। তবে ভাত খেলে যেমন ওজন বাড়ে এটা যেমন সত্য ঠিক তেমনি ভাতে খেয়েও কিন্তু ওজন কমানো সম্ভব।

কি বিশ্বাস হচ্ছে না !

চলুন তবে আপনাদের একটি ডায়েট প্ল্যান বলি যা অনুসরন করেও শরীরের ওজন কমানো সম্ভব।

ওজন কমানোর খাবার

  • ভাতঃ যেহেতু ভাত নিয়ে ডায়েট প্ল্যান সেহেতু এখানে ভাত এর পরিমান হবে অবশ্যই ১ কাপ। কোন ভাবেই ১ কাপের বেশি নেয়া যাবে না।
  • মাছ অথবা মাংসঃ মাঝারি আকৃতির এক টুকরা মাছ কিংবা মাংস শরীরের আমিষের চাহিদা পুরন করে। কিন্তু তাই বলে মুখির রুচির কারনে একাধিক পিছ গ্রহন করবেন না। তাতে কোন উপকার হবে না বরং ক্ষতি হবে।
  • সবজিঃ কম তেল কিংবা তেল বিহীন সবজি ভাজি ফ্যাট অনেকাংশে কমায়। ১ কাপ পরিমান সবজি অবশ্যই ডায়েট চার্ট এ রাখা উচিৎ। সবচাইতে ভালো হয় কাচা সবজির সালাদ রাখলে।
  • ডালঃ আমরা অনেকেই জানি না ডাল ফ্যাট কাটাতে সাহায্য করে এবং সাথে পুষ্টিও যোগায়। ডাল পরিমিত আকারে ১ কাপ খাওয়া উচিৎ।
  • দইঃ ২ কাপ টক দই খাওয়ার পর খেলে খাবার হজম হতে সহায়তা করে।

 

ডায়েট প্লানঃ-২

অনেকেই আছেন যারা ভাতের প্রতি আছে অনিহা কিংবা ডায়বেটিস রোগে আক্রান্ত। তাদের জন্য আমার এই নির্দেশনা।

  • রুটিঃ খাওয়ার তালিকায় প্রধান অংশ হিসেবে ২ টি করে আটার রুটি রাখতে হবে , তবে এখানে পাউরুটি কিংবা ময়দা হলে চলবে না। যদি সম্ভব হয় তবে লাল আটা দিয়ে বানানো রুটি খাওয়ার চেস্টা করবেন।
  • সবজিঃ কম তেল কিংবা তেল্বিহিন সবজি ভাজি আটার রুটির সাথে খেতে পারেন । এক্ষেত্রে সবজির পরিমান হবে ১/২ (অর্ধেক) কাপের মত।
  • ডিমের সাদা অংশঃ ডিমে প্রচুর পরিমান প্রোটিন থাকে তাই ডিম খাওয়া উচিৎ। সেইক্ষেত্রে ডিমের সাদা অংশ খেতে পারেন । এতে ক্যালরি অনেক কম থাকে।
  • মাছ কিংবা মাংশঃ ১ টুকরা মাছ কিংবা মাংস খেতে পারেন কিন্তু খেয়াল রাখবেন যেন পরিমান টা বেশি না হয়ে যায়।
  • ফলঃ নাসপাতি, আপেল কিংবা পেপে এই তিনটি ফলের যে কোন ১ টির অর্ধেক করে খাবেন।
  • দইঃ দই খেতে চাইলে ২/৩ টেবিল চামচ খেতে পারেন।

ডায়েট প্ল্যানঃ-৩

যারা খুব দ্রুত ওজন কোমাতে চান তাদের জন্য আমার এই নিনজা টেকনিক। ফল অবশই পাবেন।

  • কর্নফ্লেক্সঃ হাই ফাইবার কর্নফ্লেক্স ওজন কমাতে সাহায্য করে তবে কর্নফ্লেক্স অবশ্যই চিনি ছাড়া হতে হবে। যদি চিনি ছাড়া খেতে অসুবিধা হয় তবে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন।
  • দুধঃ মাখন(সর,ননি) ছাড়া দুধে ক্যালরির পরিমান অনেক কম থাকে। তাই ডায়েট চার্টে ১ কাপ মাখন ছাড়া দুধ অবশ্যই রাখবেন।
  • ফলঃ এই ডায়েট চার্টে ফল কিন্তু মুখ্য ভুমিকা পালন করবে। রাতে পাকা পেপে খেতে পারেন যা ফ্যাট কমাতে বেশ কার্যকরি।লেবুর রসের শরবত খেতে পারেন। বা ভাত দিয়ে খোসাসহ খেতে পারেন। এভাবে লেবু দিয়ে ওজন কমাতে পারেন।

কর্নফ্লেক্স ও গরম দুধ এক সাথে মিশিয়ে খেয়ে নিন। এর সাথে ১ মুঠো কাঠ বাদাম ও খেতে পারেন।

 

পরিশেষ বলতে চাই, স্বাস্থ্যই সম্পদ । নিজের স্বাস্থ্য কে যত টা সুস্থ্য রাখার চেষ্টা করবেন ততটাই স্বাচ্ছন্দে জীবন যাপন করতে পারবেন। রোগের আক্রমণের শিকার ও কম হবেন। তাই নিজেকে সুস্থ রেখে ওজন কমান। কারণ যত যাই করুন না কেন, মনে রাখবেন দিন শেষে সুস্থতাই আপনাকে সুন্দর জীবন উপহার দেবে।

 

আশা করি ২য় পর্বে মেয়েদের দ্রুত ওজন কমানোর সহজ কিছু উপায় নিয়ে হাজির হবো ।

ওজন কমানোর উপায়,লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপায়,৭ দিনে ওজন কমানোর উপায়, ওজন কমানোর উপায় লেবু, মেয়েদের দ্রুত ওজন কমানোর উপায়,ওজন কমানোর খাবার, ওজন কমানোর খাদ্য তালিকা, ওজন কমানোর ঔষধ, ১৫ দিনে ওজন কমানোর উপায়, দ্রুত ওজন কমানোর ডায়েট চার্ট, ওজন কমানোর খাবার, দ্রুত ওজন কমানোর উপায়,মেয়েদের ওজন কমানোর উপায়, ওজন কমানোর ডায়েট চার্ট, ৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায়,২০ কেজি ওজন কমানোর ডায়েট চার্ট, পুরুষের ওজন কমানোর উপায়, ছেলেদের ওজন কমানোর উপায়, ছেলেদের ওজন কত হওয়া উচিত, ছেলেদের ওজন কমানোর ব্যায়াম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *